Monday, January 22, 2018

মোঃ মুসা আজ থেকে ভাঙা রিকশা চালাবেন না




মোঃ মুসা সহজ সরল ধার্মিক মানুষ। বাড়ি জামালপুর জেলার মেলান্দহ উপজেলার আটাবাড়ি গ্রামে। ঢাকায় থাকেন গোপীবাগ বিন্দু গলিতে। পেশায় রিকশাচালক ।বয়স ৬০ এর কাছাকাছি। এই বয়সেও রিকশা চালাতে হয় জীবনের তাগিদে। নিজের রিকশাই চালান। তাঁর বয়সের কথা চিন্তা করে মসজিদের মুসল্লিদের সহায়তায় ২/৩ বার বাসার দারওয়ান কিংবা নাইট গার্ডের চাকরির ব্যবস্থা করে দিয়েছিলেন কিন্তু তাতে যে আয় হয় সংসার চলেনা। তাই তাঁর নিজের অরিজিনাল পেশাতেই ফিরে আসেন বারবার। তাঁর নিজের রিকশাটি বেশ পুরনো হয়ে যাওয়াতে চালাতে বেশ পরিশ্রম করতে হয়, মাঝে মাঝেই ঠিকঠাক করে চালাতে হয়। 

রিকশা ঠিক করার জন্য দুয়েক জনের কাছে ধার ও চেয়েছেন কিন্তু পাননি। আমাদের একজন ডোনার(মোহাম্মাদ খাইরুল আলম) এর মাধ্যমে মোঃ মুসার কথা জানতে পারি।গতকাল(২১শে জানুয়ারি ২০১৮) উনার সাথে দেখা করে জানতে চাইলাম উনার রিকশা মেরামত করতে কত টাকা লাগবে। উনি বললেন ভালো ভাবে ঠিক করতে কমপক্ষে আট হাজার টাকা লাগতে পারে। এটা শুনে আমরা জিজ্ঞেস করলাম নতুন রিকশা কিনতে কত লাগবে।উনি বললেন একদম নতুন কিনতে/বানাতে ২০০০০ টাকা লাগে, কিছুদিন ব্যবহার করা রিকশার দাম পড়বে ১৫ হাজার টাকার মতো। আমাদের মনে হল উনাকে ১৫ হাজার টাকা দিয়ে একটা রিকশা কিনে দেওয়াই শ্রেয়। তাই উনাকে প্রস্তাব দিলাম উনার পুরাতনটা বিক্রি করে দিতে আর ঐ টাকার সাথে বাকিটা যুক্ত করে ১৫ হাজার টাকায় একটা রিকশা কিনে দেবো আমরা। উনি খুবই খুশি হলেন কিন্তু এও বললেন উনি নিজেও চেষ্টা করেছেন এটা বিক্রি করতে কিন্তু কোন ক্রেতা পাননি। তখন তাঁকে বললাম পুরাতন টা ভাড়া দিয়ে দিতে আর আমাদের দেওয়া নতুন টা উনি চালাবেন। পুরাতন টা ভাড়া দিয়ে যে টাকা পাবেন সেটা উনি আমাদেরকে ফেরত দিয়ে দিবেন প্রতিদিন, আর যদি এটা বিক্রি করতে পারেন বিক্রির পুরো টাকা আমাদের ফেরত দিয়ে দিবেন।


আজ আমরা মোঃ মুসাকে ১৫ হাজার দিয়ে এই রিকশাটি কিনে দিয়েছি আমাদের কথা অনুযায়ী। এতো বয়সে রিকশা কিনে চালাতে বলাটাও অমানবিক কিন্তু উনি এখনো রিকশা চালাতে চাচ্ছেন বলেই আমরা অল্প একটু সহায়তা করেছি মাত্র। আমাদের ইচ্ছা মোঃ মুসা কে আমরা আরও দুইটি রিকশা কিনে দেবো যখন উনি আমাদের টাকাটা ফেরত দিয়ে দিবেন অল্প অল্প করে। তখন উনি আর রিকশা না চালালেও দৈনিক ৩৫০/৩৬০ টাকা আয় করতে পারবেন রিকশার ভাড়া থেকেই।

উনার চোখে মুখে যে কৃতজ্ঞতা দেখেছি রিকশাটা পেয়ে, সেটাই আমাদের আসল প্রাপ্তি। সেটাই আমাদের Story of Happiness এর শুরু , এটার পূর্ণতা পাবে তখনই যেদিন আমরা মোঃ মুসাকে ৩/৪ টি রিকশার মালিক করে দেবো , যেদিন থেকে উনাকে আর এই বৃদ্ধ বয়সে রিকশা চালাতে হবেনা।
One Taka Fund এর সাথে আপনিও আসুন আমাদের Story of Happiness এর পূর্ণতা দিতে। 



  

No comments:

Post a Comment