Thursday, December 5, 2019

We are Thankful to Rakibul Hasan

It is a Great News for One Taka Fund that One New Donor Donated for 30 Members.


Rakibul Hasan donated for 30 Members and become our DF30 Type Donor.




He is our 268th Donor and for his donation our Member Number is now 807.

One Taka Fund is Grateful & Thankful to Rakibul Hasan for Trusting us to Help others.

We will try our Best to create a Story of Happiness with his donation. 

ধন্যবাদ, আপনাদের কাছে বিশেষভাবে কৃতজ্ঞ




হাঁটি হাঁটি পা পা করে যাত্রা শুরু করা ওয়ান টাকা ফান্ড এখন পর্যন্ত ২৬৭ জন ডোনারের মাধ্যমে ৭৭৭ জন সদস্যের   ১,৩২,১১০/= (এক লক্ষ বত্রিশ হাজার একশত দশ) টাকা সংগ্রহ করে ৫,৬৮,৪৪০/=(পাঁচ লক্ষ আটষট্টি হাজার চারশত চল্লিশ)টাকা ৫৫জন সংগ্রামী মানুষের মাঝে সফলভাবে বন্টন করেছে যার মধ্যে ৪ টি পরিবার পুরোপুরি ঘুরে দাঁড়িয়েছে! সবার ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় তৈরি হয়েছে “স্টোরিজ অফ হ্যাপিনেস” যার অংশীদার আজ আপনারা সকলে। আর এই সফলতা গুলোকে অবলম্বন করে ওয়ান টাকা ফান্ড আজ তৃতীয় বর্ষে পদার্পণ করেছে আর তার স্বপ্নের ও পরিব্যাপ্তি ঘটেছে।    

সম্মানিত ডোনারদের ডোনেশন গুলোর যাথাযথ ব্যবহার নিশ্চিতকরণে শুরু থেকেই আমাদের প্রচেষ্টা ছিলো যোগ্য ব্যক্তির সন্ধান করে সেটি তার কাছে পৌঁছে দেয়াসেজন্য প্রজেক্ট ডাইভারসিফিকেশন করেছি অত্যন্ত গুরুত্বের সাথে। যার ফলশ্রুতিতে ওয়ান টাকা ফান্ড এর গ্রহীতাগনের মধ্যে ৪ টি পরিবারের কেউ কেউ আজ রিক্সার মালিক হয়েছেন, কেঊ ঋণের সুদের বোঝা থেকে মুক্তি পেয়েছেন, বন্ধক রাখা অলঙ্কার ফিরে পেয়েছেন, কেউ করছেন সব্জির ব্যবসা, কাপড়ের ব্যবসা কিংবা দুধের ব্যবসা,চটপটির দোকান, ভার্সিটির টিউশন ফি,ভর্তি ফি,মুদির দোকান,সেলাই মেশিন,তেল বীজের ব্যবসা, পিঠার ব্যবসা, কিংবা গ্রামীণ ব্যাংকের ঋণ পরিশোধ, এমন কি জমির মালিক বনে যাওয়া আরো কত কি! যে পরিবার গুলো নিত্যদিন দারিদ্র্যের কষাঘাতে জর্জরিত হয়ে ঘুরে দাঁড়ানোর স্বপ্প ছিলো অধরা সেখানে আজ তাঁদের সফলভাবে ঘুরে দাঁড়ানো দেখে আমরা বিস্মিততাঁদের অসামান্য সংগ্রামী জীবনের সফলতার অংশ হতে পেরে আমরা গর্বিত।  

একটি স্বপ্নকে বাস্তবে রূপ দিতে আপনাদের সকলের যে অকুন্ঠ সমর্থন আর সহযোগিতা পেয়েছি তার জন্য সকলের কাছে বিশেষভাবে কৃতজ্ঞ ধন্যবাদ ওয়ান টাকা ফান্ড এর সকল সদস্যবৃন্দকে।

Wednesday, October 30, 2019

We are Thankful & Grateful for Your Support


Today is the 2nd Year Celebration of One Taka Fund.

We are Happy to inform you that in this 2Years Journey we helped 51persons (read it family).

We have helped about 5Lac Taka (496940tk).

Our Total Fund is 132110 tk only  

Wednesday, September 4, 2019

Touhidur Rahaman Khan donated for 12Months

We are Happy to inform you that we have one new donor who donated one taka daily for 12months.

Touhidur Rahaman Khan is 267th Donor as well as 777th Member of One Taka Fund.

He is a DS01 type donor but donated for 12 Months rather than 6months.



Best wishes for Touhidur Rahaman Khan and we are thankful to him for trusting us to help others.

We are also grateful to Mahmudul Hasan Shohan(98th Donor) for motivating him to join One Taka Fund to help others.

Saturday, August 3, 2019

Great News for One Taka Fund

Four Members of One Taka Fund declared that they will continue their donation to One Taka Fund . 


Donor # Name  Donated For
98th Mahmudul Hasan Sohan 12Months
232nd Babar Md. Khalid Akbar  12Months
235th Ashraf Hasan 12Months
240th Rahnuma Tarannum 18Months

Our Policy was to collect donation from members just for 6months/180days (daily one taka). But they want to continue their donation to One Taka Fund for Helping others.


We are Thankful to all of them for their Trust in One Taka Fund to help others.

Tuesday, June 18, 2019

New Donor with three members


We are happy to inform you that Enamul Hoque Sarkar joined One Taka Fund as DF03 Type donor.




We are Thankful to Enamul Hoque Sarkar for helping us to Help others.

Friday, June 7, 2019

New Donation in Zakat Fund



We are thankful to Abdul Kader Khondoker for donating in our Zakat Fund.



When helping someone from Zakat Fund we do not take it back from him/her (as we do as per One Taka Fund Policy). 

We try our best to make someone self dependent by the Zakat Fund rather than buying clothes. 

We believe the Great Chinese Proverb "If you give a man a fish, he eats for a day; If you teach a man to fish, he eats for a lifetime."




Monday, May 27, 2019

Zakat Fund is raising

We are glad to inform that, Faysal Ibne Khair donated a portion of his Zakat in One Taka Fund's Zakat Fund. 

It is also noted that he was the first Donor of our Zakat Fund. 

We are Thankful to Faysal Ibne Khair for Trusting One Taka Fund to help someone to become self dependent by our Zakat Fund.



You will Happy to Know that last year we received 7320 tk as Zakat. By this fund we helped two person to lift up their position by increasing income source. 

This year we already helped 27000+ tk to helped another two person become self dependent. 

We will inform you in details of them in our Upcoming Story of  Happiness.

Tuesday, May 21, 2019

Story of Happiness with the Help of Zakat Fund


মন্তু মিয়া , একজন অটো রিকশা চালক প্রতিদিন মালিক কে ২০০ টাকা দিতে হয়। যেদিন রিকশা চালাতে পারেন সেদিন কোন সমস্যা হয়না, ২০০ টাকা মালিক কে দিয়েও ভালো ভাবেই চলে যায় তার সংসার। কিন্তু শারীরিক ভাবে কিছুটা দুর্বল মন্তু মিয়া মাঝে মাঝেই রিকশা চালাতে পারেন না। অসুস্থতার কারনে অনিয়মিত বলে মালিক ও অন্য রিকশা চালককে রিকশা দিয়ে দেন, মানে সুস্থ থেকেও মাঝে মাঝে রিকশা না থাকার কারনে বাড়িতে অলস সময় কাটাতে হয় তাঁকে।  শারীরিক দুর্বলতার জন্য ম্যানুয়াল রিকশা চালানো তার জন্য বেশ কষ্টকর। 



One Taka Fund এর মাধ্যমে উনাকে ২০ হাজার টাকায়  একটি Second Hand অটো রিকশা কিনে দিয়ে তাঁকে প্রতিদিন ১০০ টাকা করে জমা দেওয়ার প্রস্তাব দিলাম, উনি খুশি মনেই রাজি হলেন, কারণ রিকশা টা তার কাছেই থাকবে, চালাতে না পারলেও ভাড়া দিয়ে অন্তত ২০০ টাকা আয় করতে পারবে । আমরা তাঁকে আরেকটি শর্ত দিলাম যে যদি তিনি প্রতিদিন ১৭০ টাকা করে দিতে পারেন তাহলে শুধু ৯০ দিনে ১৫০০০ টাকা দিলেই হবে (৯০*১৭০=১৫৩০০)। শর্ত শুনে উনি খুশি হবার চেয়ে অবাকই হলেন বেশী । আমাদের যাকাত ফান্ড এ কিছু টাকা ছিল তাই ৫০০০ টাকার সুযোগ টা আমরা তাঁকে দিতে চেয়েছি । কারণ আমাদের যাকাত ফান্ড থেকে আমরা যে সাহায্য গুলো করে থাকি সেগুলো আমরা ফেরত নেই না , একেবারেই দান করা হয়।

যদিও মন্তু মিয়া ৯০ দিনে ১৫০০০ টাকা শোধ করতে পারেন নাই, ১০৫ দিনে শোধ করে দিয়েছেন আর নিজেই হয়ে গেছেন রিকশার মালিক। এখন আর তাঁকে অন্যের রিকশা না পাওয়ার মানসিক ভয় কাজ করেনা। নিজের রিকশা নিজেই চালান, যখন খুশি তখন চালান। বরং অসুস্থ থাকলে রিকশা ভাড়া দিয়ে ২০০ টাকা আয় হয়। যাকাত ফান্ডের কারনে আমরাও পেরেছি আরও সহজ শর্তে মন্তু মিয়াকে রিকশার মালিক করে দিতে সক্ষম হয়েছি।

মন্তু মিয়ার রিকশার মালিক বনে যাওয়াই আমাদের Story of Happiness